সদরসিরাজগঞ্জ

আরএমটিপি আওতায় আইএসও সনদপ্রাপ্তি

দুগ্ধজাত ভোগ্য পণ্য প্রিমিয়াম বাজারে বিক্রয় করতে সনদায়ন একটি জরুরি বিষয়। পণ্য মোড়কজাত হলে অবশ্যই বিএসটিআই সনদ থাকতে হবে। উৎপাদিত দুগ্ধজাত পণ্যের সনদায়নের মাধ্যমে ব্র্যান্ড উন্নয়ন করলে প্রিমিয়াম বাজারে উক্ত পণ্যটি পরিচিতি লাভ করায় প্রিমিয়াম বাজারে উৎপাদিত দুগ্ধজাত পণ্যটির চাহিদা বাড়ে এবং মূল্য সংযোজন ঘটায় তা উচ্চ মূল্যে বিক্রয় হয় ফলে ব্যবসায়িক উদ্যোগটি আর্থিক ভাবে অধিক লাভবান হয়। এছাড়া আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বিভিন্ন সময় আর্থিক জরিমানা হতে দায়মুক্ত থাকা যায়।

স্থানীয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশ ও উচ্চ মূল্যে পণ্য বিক্রির উদ্দেশ্যে ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম-এনডিপি বাস্তবায়িত আরএমটিপি এর সহযোগিতায় উদ্যোক্তা আব্দুল মালেক (সাদেক খান দই ঘর), আব্দুল খালেক (সলপ ঘোল ও মাঠা), তমিজ উদ্দিন, এবং গোয়ালা ডেইরি  এর জন্য আইএসও সনদের আবেদন করা হয়। আবেদনের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অডিট করে সনদ প্রাপ্তির সকল শর্তাবলী পূরণ করায় উদ্যোক্তাগণ আইএসও সনদপ্রাপ্ত হয়। এনডিপির নির্বাহী পরিচালক মো. আলাউদ্দিন খান উদ্যোক্তা মো. আব্দুল মালেক খানকে আইএসও সনদপত্র তুলে দেন। এ বিষয়ে উদ্যোক্তা মো. আব্দুল মালেক খান  ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম-এনডিপিকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন ”এনডিপি-আরএমটিপি প্রজেক্টের মাধ্যমে সনদায়ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ, অভিজ্ঞতা বিনিময় সফরে অংশগ্রহন করে সনদায়নের গুরত্ব অনুধাবনকরে আবেদন করি এবং সনদপ্রাপ্ত হই। বর্তমানে আমি ঢাকাসহ সারা দেশে আমার পণ্য সঠিক মূল্যে বিক্রয় করতে পারছি। ভবিষ্যতে কলকাতাসহ দেশের বাইরে আমার পণ্য বিক্রয়ের পরিকল্পনা রয়েছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button