সদরসিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা

“শিক্ষা-ধর্ম সম্প্রীতি মশিগশি মূলনীতি” এই পতিপাদ্য শ্লোগানকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জন এবং নৈতিক শিক্ষার প্রসারে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা ২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার (১৪ মে) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর সংলগ্ন অফিসার্স ক্লাবে জেলা প্রশাসন ও মন্দির ভিত্তিকশিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম সিরাজগঞ্জের আয়োজনে কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন ট্রাস্টি হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা স্ত্রী স্বপন কুমার রায়।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন ও কর্মশালা দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান।

এসময় তিনি বলেন, “টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জন এবং নৈতিক শিক্ষার প্রসারে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষার গুরুত্ব রয়েছে। একটা শিশু যখন কিছুই জানেনা তখন মন্দিরে তাকে প্রয়োজনীয় নৈতিক শিক্ষা প্রদান করা হয়। যার কারণে শিশুরা ভাল গুনের অধিকারি হয়। সেই সাথে প্রয়োজনীয় ধর্মীয় শিক্ষাও পায় তাদের মাঝে আদর্শ, নৈতিকতা, সহনশীলতা ও মানবিক মূল্যবোধের উদয় হবে। এ ছাড়া জীবনমান উন্নয়ন ও সচেতনতা সৃষ্টিতেও ধর্মীয় শিক্ষা কার্যকর ভূমিকা রাখে। এজন্য মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে রাখা প্রয়োজন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) গনপতি রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইসিটি, উন্নয়ন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা রোজিনা আক্তার, কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট বিমল কুমার দাস, সিরাজগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সন্তোষ কুমার কানু, সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় সাহা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট সুকুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক নোটারিয়ান নরেশ চন্দ্র ভৌমিক, জেলা ব্রাহ্মন কল্যাণ সমিতির সভাপতি অশোক ব্যানার্জী,  সিরাজগঞ্জ মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম কার্যালয়ের সহকারী প্রকল্প পরিচালক মো. জাকির হোসেন রানা প্রমুখ।

এসময় অন্যন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মন্দির ভিত্তিক বিভিন্ন কর্মকর্তা সিরাজগঞ্জ, পাবনা,ব গুড়া, জয়পুরহাট জেলার সহকারী প্রকল্প পরিচালক এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষিকা, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ। উল্লেখ্য: মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম’ ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন একটি প্রকল্প। প্রাক-প্রাথমিক এবং বয়স্ক শিক্ষাকেন্দ্রের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা প্রকল্পের প্রধান কাজ। এছাড়া নিরক্ষরতা দূরীকরণে, বিদ্যালয়ে গমনোপযোগী ১০০% শিশুকে বিদ্যালয়ে ভর্তিতে এবং ঝড়ে পড়া রোধ করতে প্রকল্পটি কাজ করছে। টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট অর্জন, সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন, নারীর ক্ষমতায়ন এবং সরকারের ‘ভিশন-২০২১’ বাস্তব রূপায়নে প্রকল্পটি কার্যকর ভূদিনব্যপী কর্মশালায় কিভাবে নৈতিক শিক্ষা কার্যক্রম ছড়িয়ে দেয়া যায় তা নিয়ে আলোচনা করা হয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button